সংবাদ শিরোনাম

 

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ক্রীড়াঙ্গনকে আমাদের এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। কারণ আমরা যে স্মার্ট বাংলাদেশ চাই, সেই স্মার্ট বাংলাদেশের চারটি স্তম্ভের মূল হচ্ছে স্মার্ট নাগরিক।

আর সেই স্মার্ট নাগরিককে শরীর ও মনে সুস্থ মানুষ হতে হবে। তার সমস্ত সম্ভাবনাকে বিকশিত করতে হবে এবং সে জন্য খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই।
শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট লীগ-২০২৩ এর ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সমাজকল্যাণমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার মত ক্রীড়ামোদী রাষ্ট্র নায়ক খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন। তার সরকারের সময়ে বিগত ১৫ বছর সর্বক্ষেত্রে খেলাধুলায় উন্নত হয়েছে এবং এটি সবার দৃষ্টি কেড়েছে। আগামীতেও তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ খেলাধুলায় আরও ভালো করবে এটিই আমাদের প্রত্যাশা।

দীপু মনি বলেন, আমরা জাতির পিতাকে জানি। তিনি নিজে খেলোয়াড় ছিলেন। তার বাবাও খেলোয়াড় ছিলেন এবং জাতির পিতার পুরো পরিবার ভাল খেলোয়াড় এবং ক্রীড়া সংগঠক। কারণ শেখ কামাল বাংলাদেশের স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের সবচাইতে উল্লেখযোগ্য ক্রীড়া সংগঠক। কারণ তার তৈরি সংগঠন বর্তমানে বাংলাদেশে সবচেয়ে বড় উল্লেখযোগ্য সংগঠন হিসেবে প্রতিটি ক্রীড়াঙ্গনে কাজ করে চলেছেন।

তিনি আরও বলেন, খেলাধুলা নিয়মিত না হলে খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণও নিয়মিত হয় না। তাদের খেলার উৎসাহ উদ্দীপনা সেটা সেভাবে থাকে না এবং চর্চা হয় না। চাঁদপুরে পুরো বছর জুড়ে খেলাধুলা অব্যাহত থাকে সে ব্যবস্থা করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, আজকে এই অনুষ্ঠানে এসে অনেক ভাল খবর পেয়েছি। অনুর্ধ্ব-১৬ ক্রিকেটে আমরা বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। এরা নিশ্চয়ই জাতীয় পর্যায়ে গিয়ে ভালো করবে। আমাদের ফুটবলে অনুর্ধ্ব-১৭ জাতীয় পর্যায়ে গোলকিপার হচ্ছে আমাদের এখানকার জুঁই। আবার ফুটবলে অনুর্ধ্ব-১৬ জাতীয় পর্যায়ে গোলকিপার আমাদের চাঁদপুরের মেয়ে মেঘলা। যে কারণে আমরা চাঁদপুরের মানুষ গর্বিত। কাজেই আমাদের মেঘনা পাড়ের মেয়েরা এখন সবকিছু রক্ষা করছে। আশা করছি আমাদের মেয়েরা আরও ভালো করবে।

এর আগে সকাল ১১টায় ফাইনাল খেলায় অংশগ্রহণ করে শেখ কামাল স্পোর্টস একাডেমি বনাম টিম ডাকাতিয়া। শেখ কামাল রেড প্রথম বেটিং করে সবকটি ইউকেট হারিয়ে ৯৩ রান করে। জবাবে টিম ডাকাতিয়া ১১ ওভার ৪ বলে ২ উইকেট হারিয়ে ৮ উইকেটে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি কামরুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) সুদীপ্ত রায়, পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি জাহিদুল ইসলাম রোমান।

চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. জে আর ওয়াদুদ টিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফাসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম