সংবাদ শিরোনাম

 

 

ভোজের পর্ব শেষ। এরপর শুরু হয় বিয়ের কার্যক্রম। তবে বাধ সাধে যৌতুকের টাকা নিয়ে। চাহিদা অনুযায়ী যৌতুক না পেয়ে বিয়েই করলেই না বর। উল্টো চলে গেলেন বিয়ের আসর ছেড়ে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে এমনই ঘটনা ঘটে নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার রংছাতি ইউনিয়নের বটতলা গ্রামে।

বর একই উপজেলার খারনৈ ইউনিয়নের বামনগাঁও গ্রামের শরীফ মিয়ার ছেলে হাসেন মিয়া (২৫)।

এ ঘটনায় শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে কনের বাবা বাদী হয়ে বর ও বরের বাবাসহ তিনজনকে আসামি করে কলমাকান্দা থানায় অভিযোগ করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সপ্তাহখানেক আগে হাসেন মিয়ার বিয়ে ঠিক হয় পার্শ্ববর্তী রংছাতি ইউনিয়নের বটতলা গ্রামের এক তরুণীর সঙ্গে। বিয়ে ঠিক হওয়ার সময় কনের বাবা বিয়ের খরচ বাবদ বরের পরিবারকে ৪০ হাজার টাকা দেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। সময়মতো বর তার আত্মীয়-স্বজনসহ ৪০ জন সহযাত্রী নিয়ে আসেন। খাওয়া-দাওয়া শেষে বিয়ের কার্যক্রম শুরু হয়।

এসময় বরের পক্ষ থেকে আরও ৭০ হাজার টাকা যৌতুক চাওয়া হয়। তবে যৌতুকের টাকা দিতে কনের পরিবার অস্বীকার করলে বিয়ের আসর থেকে তিনি লোকজন নিয়ে চলে যান।

বিয়ে উপলক্ষে খাওয়া-দাওয়া ও ডেকোরেশন বাবদ দুই লাখ টাকা খরচ হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন কনের বাবা।

এ বিষয়ে জানতে বর হাসেন মিয়ার ফোনে কল দেওয়া হলে তিনি নিজে কথা না বলে তার মামা সবুজ মিয়াকে দেন। সবুজ মিয়া বলেন, দুপুরে বাড়িতে পুলিশ এসেছিল। তাদের কথামতো আমরা বর ও কনের পক্ষের লোকজনের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে। রাতে বরকে নিয়ে বিয়ে করাতে কনের বাড়িতে যাবেন বলেও তিনি জানান।

কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম