সংবাদ শিরোনাম

 

 

কিশোরগঞ্জের হাওরের মিঠামইন উপজেলায় স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে মো. আব্দুল মালেক (৩৬) নামে এক মাছ ব্যবসায়ী খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলায় অভিযুক্ত চার আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে কিশোরগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. আল আমিন হোসাইন এ তথ্য জানান।

গ্রেপ্তাররা হলেন- মিঠামইনের কাটখাল ইউনিয়নের শান্তিপুর গ্রামের মো. ওসমান মিয়ার ছেলে মো. হুমায়ুন (৩০), একই গ্রামের মৃত আব্দুল খালেক মিয়ার ছেলে মো. ওসমান মিয়া (৬০) ও মো. সিরাজ মিয়া (৫৫) এবং মো. আব্দুল হামিদের ছেলে মো. নাদিফ মিয়া ওরফে নাদিম (২৩)।

অন্যদিকে, নিহত মো. আব্দুল মালেক (৩৬) একই উপজেলার শান্তিপুর গ্রামের মৃত আকবর আলীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে স্ত্রীর পরকীয়ার জের ধরে মো. আব্দুল মালেককে নিজ বাড়িতে মারধর করে হত্যা করে পরকীয়া প্রেমিক আব্দুল মালেকসহ তার পরিবারের লোকজন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) নিহত মালেকের বড় ভাই মো. হামিদুর রহমান বাদী হয়ে মিঠামইন থানায় ১২ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৩-৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর ২৫ জানুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে মিঠামইন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আহসান হাবীব ও কাটখাল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মুহাম্মদ শাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলার রায়লা গ্রামে অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় এজাহারনামীয় আসামি মো. হুমায়ুন ও তার বাবা মো. ওসমান মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তী সময়ে ২৬ জানুয়ারি ভোরে মিঠামইনের বৈরাটি ইউনিয়নের বাহেরচর গ্রামে অভিযান চালিয়ে আসামি মো. সিরাজ মিয়া ও মো. নাদিফ মিয়া ওরফে নাদিমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ প্রসঙ্গে কিশোরগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. আল আমিন হোসাইন বাংলানিউজকে জানান, গ্রেপ্তার আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম