সংবাদ শিরোনাম

 

প্রেমিকের সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে ব্রহ্মপুত্র নদে ডুবে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। সোমবার (৮ জুলাই) দুপুর সোয়া ২টার দিকে ময়মনসিংহ নগরের জয়নুল আবেদিন উদ্যান (পার্ক) এলাকা সংলগ্ন ব্রহ্মপুত্র নদে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় ঘটনাটি পার্ক এলাকায় উপস্থিত শত শত মানুষ প্রত্যক্ষ করেন। অনেকে ঘটনাটি মোবাইল ফোনে ধারণ করেন বলে জানা গেছে।

তবে তাৎক্ষণিক স্থানীয় কয়েকজন নৌকার মাঝি ওই কিশোরীকে তলিয়ে যেতে দেখে উদ্ধার করলে প্রাণে বেঁচে যায়।

মাঝিরা জানান, মেয়েটির বাড়ি সদর উপজেলায়। সে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তারা দুই বোন ও এক ভাই। সে সবার ছোট। প্রেমিকের সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে রাগ করে নদে ডুবে মরতে চেয়েছিল বলে জানিয়েছে ওই কিশোরী। এসময় ওই কিশোরী একটি ছেলের (প্রেমিক) নম্বর দেয়। তবে ওই নম্বরে কল করা হলে ছেলেটি আত্মহত্যার চেষ্টা করা মেয়েটিকে চেনে না বলে মোবাইল ফোনের সংযোগ কেটে দেয়। পরে ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হয় বলে জানান মাঝিরা। পরে স্থানীয় দুই নারী ওই কিশোরীকে পরিবারের কাছে পৌঁছে দিতে নিয়ে যায়।

কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল কিন্তু ওই কিশোরীকে পাওয়া যায়নি। তবে তার পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, হঠাৎ উদ্যান এলাকার ব্যাট-বল চত্বরের দিক থেকে এক স্কুল ছাত্রী স্কুলব্যাগ ও জুতা ফেলে দৌড়ে ব্রহ্মপুত্র নদে ঝাঁপ দেয়। বর্ষায় ব্রহ্মপুত্র নদে পানি বাড়ায় সে স্রোতে তলিয়ে যেতে শুরু করে। তাৎক্ষণিক মো. স্বপন মিয়া নামের এক মাঝি নৌকা নিয়ে এগিয়ে গিয়ে ছাত্রীকে হাঁসফাঁস অবস্থায় উদ্ধার করে আরও কয়েকজনের সহযোগিতায় তীরে নিয়ে আসেন।

প্রত্যক্ষদর্শী দেলোয়ার হোসেন বলেন, গত এক সপ্তাহে বর্ষা ও উজানের ঢলে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি অনেক বেড়েছে। সেই সঙ্গে ভরপুর নদের পানিতে স্রোতও সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় নৌকার মাঝির সাহসিকতায় মেয়েটি প্রাণে বেঁচে গেল।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম