সংবাদ শিরোনাম

 

 

‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯’-এ কল করে ময়মনসিংহ শহরের একটি যৌনপল্লি থেকে উদ্ধার হয়েছেন এক তরুণী। তিন মাস ধরে তাকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করা হয়েছিল।

 

রবিবার (৩ ডিসেম্বর) বিকালে ‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯’-এর গণমাধ্যম ও জনসংযোগ কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

 

তিনি জানান, তিন মাস আগে গার্মেন্টসে চাকরি দেওয়ার কথা বলে তরুণীকে ঝিনাইদহ থেকে ঢাকার শান্তিনগরে নিয়ে আসে পরিচিত এক ব্যক্তি। পরে ময়মনসিংহে নিয়ে গিয়ে শহরের গাঙ্গিনারপাড় যৌনপল্লিতে তাকে বিক্রি করে দেওয়া হয়। এ সময় তরুণীকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে যৌন ব্যবসা করতে বাধ্য করা হয়েছে।

 

এমন তথ্য জানিয়ে শনিবার (২ ডিসেম্বর) রাত ৯টার দিকে ওই তরুণী ‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে তাকে উদ্ধারের অনুরোধ জানান। তিনি আরও জানান, সেখানে তাকে বন্দি অবস্থায় থাকতে হচ্ছে। একজন খদ্দেরের মোবাইল থেকে তিনি ফোন করেছেন।

 

৯৯৯ নম্বরের কলটেকার কনস্টেবল ইবনুল ফয়েজ তরুণীকে দ্রুত উদ্ধারের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানাকে জানান। সঙ্গে সঙ্গে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানা পুলিশের একটি দল গিয়ে কলার তরুণীকে (২২) উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে তার অভিভাবকরা এলে তাদের কাছে তরুণীকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম