সংবাদ শিরোনাম

 

ময়মনসিংহে এক নারী চিকিৎসক ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে শরীরে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। নিহত চিকিৎসকের নাম ডা. অপর্ণা বসাক। তিনি ময়মনসিংহ নগরীর প্রান্ত স্পেশালাইজড প্রাইভেট হাসপাতালের চিকিৎসক ছিলেন।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) ময়মনসিংহ নগরীর পন্ডিতপাড়া এলাকার লাল দাস ভবনের নিচতলায় এ ঘটনা ঘটে।
ডা. অপর্ণা বসাক জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। প্রান্ত স্পেশালাইজড প্রাইভেট হাসপাতালে গত এক বছর ধরে চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মৃত্যুর আগে অপর্ণা বসাক তার ফেসবুক আইডিতে একটা স্ট্যাটাস দেন। সেখানে খন্দকার মাহাবুব এলাহী নামে একজনকে মেনশন করে লেখেন- ‘ভালো থেকো, আমি আর পারছি না। হয়তো আমিও সবার মতো হেরে গেলাম। তোমাকে মুক্তি দিয়ে গেলাম।’

কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাঈন উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পরিবারের পক্ষ থেকে আত্মহত্যার ঘটনাটি আমাদের জানানো হয়। পরে আমরা গিয়ে রান্না ঘরের দরজা ভেঙে তার অগ্নিদগ্ধ মরদেহ উদ্ধার করি। বিকেলে মরদেহের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, প্রেমের কারণে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো অভিযোগ করা হয়নি। যাকে উদ্দেশ্য করে ফেসবুক স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে আমরা তার খোঁজ করছি।

এ বিষয়ে প্রান্ত স্পেশালাইজড প্রাইভেট হাসপাতালের স্বত্বাধিকারি মশিউর আলম চন্দন বলেন, ডা. অপর্ণা বসাক গত এক বছর ধরে আমাদের হাসপাতালে মেডিকেল অফিসার হিসাবে কর্মরত ছিলেন। আজ ভোরে তিনি নগরীর পন্ডিতপাড়া এলাকার একটি বাসায় আত্মহত্যা করেছেন বলে জানতে পেরেছি। তবে কী কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা আমার জানা নেই।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম