সংবাদ শিরোনাম

 

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম শুধু উপমহাদেশের স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখেননি, তিনি স্বপ্ন দেখেছেন সকল মানুষের স্বাধীনতা, প্রতিটি ব্যক্তির স্বাধীনতার।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, তিনি বিশ্বাস করতেন, মানুষের শক্তি সীমাহীন এবং মানুষ আত্মশক্তিতে উদ্বুদ্ধ হলে কোন শক্তিই মানুষকে শোষণ, নির্যাতন, নিগ্রহ ও অমানবতার কারাগারে বন্দি রাখতে পারে না।বাঙালি জাতির বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে নজরুলের কবিতা ও গান ছিল বড় অনুপ্রেরণার উৎস। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধে নজরুলের লেখনী আমাদের অনুপ্রেরণা ও সাহস জুগিয়েছে।
কে এম খালিদ আজ সকালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কবি নজরুল ইনস্টিটিউট আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কবি নজরুল ইনস্টিটিউট নজরুলের জীবন, সাহিত্য, সংগীত ও সামগ্রিক অবদান সম্পর্কে গবেষণা পরিচালনা, রচনাবলী সংগ্রহ, সংরক্ষণ, প্রকাশ ও প্রচারে কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, নজরুল স্মৃতি বিজড়িত ময়মনসিংহের ত্রিশালের কাজীর শিমলা ও দরিরামপুরকে দর্শনীয় স্থান হিসাবে গড়ে তোলা হচ্ছে। দরিরামপুর বিচুতিয়া বেপারী বাড়িতে নজরুল বিষয়ক জাদুঘর, পাঠাগার ও মিলনায়তন প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এ বাড়ির কাছেই স্মৃতিধন্য ঐতিহাসিক বটতলায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ‘জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়’।
কবি নজরুল ইনস্টিটিউট এর নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ জাকীর হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবুল মনসুর এবং কবি পৌত্রী ও কবি নজরুল ইনস্টিটিউট ট্রাস্টি বোর্ডের ্র সদস্য খিলখিল কাজী। আলোচনা করেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউট ট্রাস্টি বোর্ডের ্র সদস্য ড. সৈয়দ মোতাহেরা বানু ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মনিরুল আলম। স্বাগত বক্তৃতা করেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউট এর সচিব মোঃ ইলিয়াছ শাহ্। অনুষ্ঠানে নজরুল সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী বদরুন্নেছা ডালিয়া ও শহীদ কবির পলাশ। নজরুলের কবিতা আবৃত্তি করেন ভাস্বর বন্দোপাধ্যায়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম