সংবাদ শিরোনাম

 

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা শনিবার (১৩ জানুয়ারি) দুই দিনের সফরে গোপালগঞ্জে যাচ্ছেন। পঞ্চমবারের মতো সরকার গঠনের পর সরকারপ্রধান হিসেবে এটা তার প্রথম সফর। এ সফরকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জ উৎসবমুখর হয়ে উঠেছে। একইসঙ্গে সেখানে নেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

শনিবার সকালে সড়ক পথে ঢাকা থেকে টুঙ্গিপাড়া পৌঁছাবেন শেখ হাসিনা। টুঙ্গিপাড়া পৌঁছে প্রথমে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন। পরে নবগঠিত মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের নিয়ে তিনি জাতির পিতার সমাধিসৌধে শ্রদ্ধা জানাবেন। এসময় তার পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত থাকবেন।

এদিন বিকালে তিনি টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। মতবিনিময় সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন বলে জেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে।

ওই দিন রাতে তিনি টুঙ্গিপাড়ার নিজ বাসভবনে রাত কাটাবেন। পরের দিন রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে কোটালীপাড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন। শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে ওই দিন তিনি সড়ক পথে ঢাকায় ফিরবেন।

টুঙ্গিপাড়া পৌরসভার মেয়র শেখ তোজাম্মেল হক টুটুল বলেন, নিজ নির্বাচনি এলাকা টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ার ভোটাররা প্রধানমন্ত্রীকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়েছেন। বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে তিনি পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। তাই প্রধানমন্ত্রী ভোটারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাবেন।

 

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুল শেখ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমনে টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ খুশিতে উদ্বেলিত। কারণ, টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ার মানুষের ভোটে তিনি পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। দুই উপজেলার মানুষের মধ্যে আনন্দ, উল্লাস ও উচ্ছ্বাসটা একটু অন্যরকম।

কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আয়নাল হোসেন শেখ বলেন, আগামী ১৪ জানুয়ারি রবিবার প্রধানমন্ত্রী কোটালীপাড়ার নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নেতাকর্মীরা মন খুলে কথা বলবেন। প্রধানমন্ত্রী তাদের কথা শুনবেন ও বলবেন। তার কাছে আমাদের কোনও কিছু চাওয়া বা পাওয়ার নাই। আমাদের কাছে সবচেয়ে বড় পাওয়া হলো আমাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে উনি পঞ্চমবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, কোটালীপাড়া উপজেলা পরিষদের সামনে মঞ্চ ও প্যান্ডেল তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। এখানে প্রধানমন্ত্রী নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। আর প্রধানমন্ত্রী কোটালীপাড়াবাসীকে শুভেচ্ছা জানাতে আসছেন, এমন খবরে কোটালীপাড়াজুড়ে আনন্দের বন্যা বয়ে যাচ্ছে।

 

গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জি এম সাহাব উদ্দিন আজম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষে গোটা জেলাকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। জেলাজুড়ে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। নেতাকর্মীরা অপেক্ষায় রয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে একনজর দেখার জন্যে। প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনি এলাকা টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ায় পৃথক দুটি শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা জানাবেন।

জেলা প্রশাসক কাজী মাহবুবুল আলম বলেন, নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৩ ও ১৪ জানুয়ারি দুই দিনের সফরে এসে জাতির পিতার সমাধিসৌধে আনুষ্ঠানিকভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। এছাড়া তিনি টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ায় দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে উৎসবমুখর রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সবার সমন্বয়ে যথাযথ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

 

সূত্র: বাসস।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম