সংবাদ শিরোনাম

 

দক্ষিণ আফ্রিকার পূর্ব উপকূলে ভারী বৃষ্টি ও তীব্র বাতাসের কারণে সৃষ্ট বন্যায় অন্তত ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। পূর্বাঞ্চলীয় দুই প্রদেশের বেশ কয়েকটি স্থানে বন্যা আঘাত হেনেছে। সেখানে দুই দফা টর্নেডো আঘাত হানার পর তাপমাত্রা অনেকটাই কমে গেছে। মধ্যাঞ্চলের বেশ কিছু জায়গায় তুষারপাতের খবর পাওয়া গেছে।

নেলসন ম্যান্ডেলা বে মিউনিসিপ্যালিটির এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইস্টার্ন কেপে অন্তত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। নেলসন ম্যান্ডেলা উপসাগর থেকে দুই হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে পৌরসভার অস্থায়ী বাড়িগুলো থেকে বহু মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়।
স্থানীয় কর্তৃপক্ষ পোশাক, খাদ্য এবং কম্বল সহায়তা দেওয়া জন্য আবেদন জানিয়েছে। প্রতিবেশী কোয়াজুলু-নাতালের প্রাদেশিক সরকারও বলেছে যে, বন্দর নগরী ডারবান এবং এর আশেপাশে কমপক্ষে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

প্রাদেশিক কর্তৃপক্ষ কোয়াজুলু-নাটালে সতর্কতা জারি করেছে। প্রাদেশিক সরকারের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৫৫ জন সামান্য থেকে মাঝারি আঘাত পেয়েছেন এবং তাদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ভারী বৃষ্টি-বন্যায় অন্তত ১২০ জন বাস্তুচ্যুত হয়েছে এবং তিনটি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।

এদিকে বন্যাকবলিত এলাকাগুলোতে উদ্ধারকারী দল মোতায়েন করা হয়েছে। বন্যার পানিতে বাড়ি-ঘর ভেসে গেছে, রাস্তা-ঘাট প্লাবিত হয়েছে এবং গাছ উপড়ে পড়েছে। অনেক স্থানেই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

খবর এএফপি


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম