সংবাদ শিরোনাম

 

২০১৭ সালে সিঙ্গাপুরের কাছে ৩ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। ৬ বছর পর লাল-সবুজ দল একই ব্যবধানে তাদের হারিয়ে প্রতিশোধই নিলো। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ১২ ধাপ এগিয়ে থাকা সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ হওয়ার ইঙ্গিত মিলেছিল। কিন্তু ফিফা প্রীতি ম্যাচের প্রথমটিতে আজ তহুরা খাতুনের জোড়ায় বাংলাদেশ ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে সিঙ্গাপুরকে। স্বাগতিকদের অন্য গোলটি করেন ডিফেন্ডার আফঈদা খন্দকার।

কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকে বাংলাদেশ একচেটিয়া দাপট দেখাতে শুরু করে। সিঙ্গাপুরকে কোনও সুযোগই দেয়নি। সাবিনা-সানজিদারা প্রতিপক্ষকে চেপে ধরে শুরুতেই গোল আদায় করে নেয়। ৪-৪-২ ছকে খেলে ম্যাচ ঘড়ির ৩ মিনিটে প্রথম গোল আসে। সাবিনার ক্রসে অনেকটা ফাঁকায় থাকা আফঈদার জোরালো হেড ক্রসবারের মাঝামাঝি জায়গায় লেগে গোল লাইনের একটু ভেতরে প্রবেশ করে। তাতেই লাল-সবুজ দলের উল্লাস শুরু।

১৬ মিনিটে বাংলাদেশ আবারও এগিয়ে। মারিয়া মান্দা একাই তিনজনের বাধা অতিক্রম করে বক্সে ঢুকে ছোট পাস বাড়ালে তার সামনে থাকা তহুরা বল নিয়ে সোজা গোলকিপারের পাশ দিয়ে জাল কাঁপান।

২৫ মিনিটে মারিয়ার পাসে বক্সের বাইরে সাবিনার জোরালো শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। বিরতির আগ পর্যন্ত সিঙ্গাপুরের রক্ষণকে তটস্থ রাখলেও আর গোল আসেনি। মারিয়া-সাবিনারা চেষ্টা করেও পারেননি এই অর্ধে গোল ব্যবধান আর বাড়াতে।

সিঙ্গাপুরও পারেনি রক্ষণ সামলে স্বাগতিকদের ওপর চড়াও হতে। পারেনি গোলকিপার রুপনা চাকমার বড় পরীক্ষা নিতে।

বিরতির পর একই ধারায় খেলতে থাকে বাংলাদেশ। তৃতীয় গোলও আসতে সময় লাগেনি। মধ্যমাঠ থেকে মাসুরা পারভীনের লং পাসে বক্সের ভেতরে বল নিয়ে তহুরা আগুয়ান গোলকিপারের ওপর দিয়ে জড়িয়ে দেন জালে। তবে এরপর আর গোল পাওয়া হয়নি স্বাগতিকদের।

একটু পর মনিকার বা পায়ের জোরালো শট অল্পের জন্য পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়।

৭০ মিনিটে কর্নার থেকে আরও একটু আত্মঘাতী গোল হতে যাচ্ছিল। খায়রুন্নেসার আলতো ছোঁয়া কোনোমতে গোলকিপার তালুবন্দী করে ব্যবধান বাড়তে দেননি।

৭৭ মিনিটে সাবিনার পাসে মারিয়া বক্সে ঢুকে ঠিকঠাক শট নিতে পারেননি। বল চলে যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে। পরের মিনিটে ঋতুপর্ণার শট গোলকিপার প্রতিহত করেন।

৮৪ মিনিটে সাবিনা খাতুনের ফ্রি কিক ক্রসবারের মাঝামাঝি জায়গায় লেগে ফিরে আসলে হতাশ হতে হয় স্বাগতিকদের। এই জয়ে বাংলাদেশ এই বছর প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ জিতলো। সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে পরের ম্যাচটি ৪ ডিসেম্বর।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম