সংবাদ শিরোনাম

 

হঠাৎ বেড়ে গেছে ডিপফেক প্রযুক্তির অপব্যবহার। আর এর শিকার হচ্ছেন ভারতীয় অভিনেত্রীরা। গত কয়েক দিনে দেশটির বেশ কয়েকজন অভিনেত্রী এই অন্তর্জাল অপরাধের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছেন রাশমিকা মান্দানা থেকে শুরু করে ক্যাটরিনা কাইফ, কাজল ও আলিয়া ভাটের মতো তারকারা। প্রযুক্তির কারসাজিতে আপত্তিকর ভিডিওতে তাদের মুখ বসিয়ে সেটা ছেড়ে দেওয়া হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

 

এ বিষয়ে অনেক তারকাই সরব হয়েছেন, প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। তবে এবার ভুক্তভোগী রাশমিকা মান্দানাই খোলাখুলি কথা বললেন। তার মতে, ‘ডিপফেক ভিডিও আমাদের চারপাশে বেশ কিছু দিন ধরেই দেখা যাচ্ছে। কিন্তু আমরা এটাকে স্বাভাবিক বানিয়ে ফেলেছি, যেটা মোটেও উচিত নয়। আমি সবসময় ভাবতাম, এটা নিয়ে কথা বললে কে শুনবে! কিন্তু সেই ধারণা পাল্টে গেছে।’

 

রাশমিকার ডিপফেক ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর বলিউড শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে অনেকেই প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি আনন্দিত যে, বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রির মানুষ আমাকে সমর্থন দিয়েছেন, সাহস যুগিয়েছেন। আমি এখন বুঝতে পারছি, এটা নিয়ে কথা বলা কতটা জরুরি। আমি নারীদের বলবো, এরকম ঘটলে তারা যেন প্রশাসনের সহযোগিতা নেন।’

চলতি মাসের প্রথম দিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় রাশমিকার ডিপফেক ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা যায়, তার মুখ সম্বলিত এক স্বল্পবসনা নারী লিফটে উঠছেন। তখন এক বার্তায় অভিনেত্রী বলেছিলেন, ‘এটা খুব দুঃখজনক যে, আমার ডিপফেক ভিডিও নিয়ে কথা বলতে হচ্ছে। এটা সত্যিকার অর্থেই খুব ভয়ানক, শুধু আমার জন্যই নয়, যারা এর শিকার হচ্ছেন, প্রত্যেকের জন্য। একজন অভিনেত্রী ও নারী হিসেবে আমার পরিবার, বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ, তারা আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন।’

 

এদিকে রাশমিকা মান্দানা বর্তমানে ব্যস্ত রয়েছেন মুক্তির অপেক্ষায় থাকা তার নতুন ছবি ‘অ্যানিমেল’র প্রচারে। সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা পরিচালিত এ ছবিতে তিনি রণবীর কাপুরের সঙ্গে অভিনয় করেছেন। ১ ডিসেম্বর বিশ্বব্যাপী এটি মুক্তি পাচ্ছে।

 

সূত্র: পিঙ্কভিলা


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম