সংবাদ শিরোনাম

 

 

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার সকল সক্ষমতা নির্বাচন কমিশনের আছে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা। আজ শুক্রবার সকালে পাবনায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

রাশেদা সুলতানা বলেন, ‘ভোট কেন্দ্রে ভোটার নিয়ে আসার দায়িত্ব প্রার্থীদের। পরিবেশ ও নিরপত্তা নিশ্চিত করবে নির্বাচন কমিশন। এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টরা কোন অনিয়ম করলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিচ্ছে কমিশন।’

বর্তমান কমিশনের অধীনে প্রতিটি নির্বাচনি অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের অভিযোগ তদন্ত করে সতর্ক করা হচ্ছে। আচরণ বিধি লঙ্ঘন হলে সামনের দিনগুলোতে কমিশন আরো কঠোর হবে বলেও জানান তিনি।
নির্বাচনে গণমাধ্যমকর্মীদের হুমকি বা সংবাদ সংগ্রহে বাধা দিলে তা অপরাধ গণ্য করে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান রাশেদা সুলতানা।

 

এর আগে মতবিনিময় সভায় পাবনার পাঁচটি আসনের মধ্যে পাবনা ১, ৩ ও ৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা নির্বাচনি প্রচারণায় বাধা দেয়ার বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন। পাবনা-১ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থীর প্রতিনিধি নাসিফ শামস রনি স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারণা ও প্রশাসনকে প্রভাবিত করার চেষ্টার অভিযোগ করেন।

পাবনা ১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ এই মুহূর্তে নির্বাচনে সুষ্ঠু পরিবেশ নেই জানিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে ভোটারদের হুমকি, প্রচারণায় বাধা ও প্রশাসনের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ করেন। পাবনা-৩ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল হামিদ আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রচারণায় বাধা ও হুমকি ও এমপির ক্ষমতা প্রদর্শনের অভিযোগ করেন। পাবনা-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী পাঞ্জাব আলী বিশ্বাস আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা ভোটারদের নৌকায় ভোট না দিলে সামাজিক নিরাপত্তা ভাতা বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ জানান।

অভিযোগের উত্তরে প্রার্থীদের আশ্বস্ত করে কমিশনার রাশেদা সুলতানা বলেন, ক্ষমতা প্রদর্শন করে না। মোটরসাইকেল মহড়ায় ভয়ভীতি না দেখিয়ে ভোটারদের মন জয় করতে প্রার্থীদের পরামর্শ দেন।

নির্বাচনে অবস্থান ধরে রাখতে প্রার্থীদের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে রাশেদা সুলতানা বলেন, আপনারা শক্ত এজেন্ট দেবেন। যারা আপনাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সক্রিয় থাকবে। নির্বাচনী বিধি বিধান সম্পর্কে ধারণা আছে এমন এজেন্ট দিতেও তিনি প্রার্থীদের পরামর্শ দেন।

 

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজশাহী) জসিম উদ্দিন হায়দার, উপ মহাপুলিশ পরিদর্শক (রাজশাহী) আনিসুর রহমান, রাজশাহী বিভাগীয় আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন, জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও পাবনা জেলা প্রশাসক মু. আসাদুজ্জামান, পাবনার পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি উপস্থিত ছিলেন।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম