সংবাদ শিরোনাম

 

 

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে অবিরাম হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল। টানা এক মাস ধরে চালানো এই হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ১০ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি। বর্বর এই আগ্রাসনের জেরে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে বাড়ছে ক্ষোভ।

আর এর মধ্যেই ইসরায়েলকে আরও উন্নত বোমা দেওয়ার পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্র। আর সেটি হলে, আরও নির্ভুলভাবে আঘাত হানতে সক্ষম মার্কিন বোমা হাতে পাবে ইসরায়েল।

সূত্রের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ৩২০ মিলিয়ন ডলারের নির্ভুলভাবে আঘাত হানতে সক্ষম এমন বোমা ইসরায়েলে স্থানান্তরের পরিকল্পনা করছে বলে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন মার্কিন কংগ্রেসকে জানিয়েছে।

মূলত ইসরায়েলে এমন বোমা স্থানান্তরের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানেন এমন একটি সূত্র সোমবার রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছে।

রয়টার্স বলছে, এ বিষয়ে প্রথম সংবাদ প্রকাশ করে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল। প্রভাবশালী এই সংবাদমাধ্যমটি বলছে, ইসরায়েলে স্পাইস ফ্যামিলি গ্লাইডিং বোম্ব অ্যাসেম্বলির পরিকল্পিত স্থানান্তরের আনুষ্ঠানিক বিজ্ঞপ্তি গত ৩১ অক্টোবর কংগ্রেসীয় নেতাদের কাছে পাঠিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

মূলত স্পাইস ফ্যামিলি গ্লাইডিং বোম্ব অ্যাসেম্বলি হচ্ছে যুদ্ধবিমানের মাধ্যমে নিক্ষেপযোগ্য এক ধরনের নির্ভুল নির্দেশিত বোমা।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল বলেছে, ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ব্যবহারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান রাফায়েল ইউএসএ তার ইসরায়েলি মূল কোম্পানি রাফায়েল অ্যাডভান্সড ডিফেন্স সিস্টেমের কাছে এসব বোমা হস্তান্তর করবে।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর থেকেই গাজায় ব্যাপক হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েলি বিমান বাহিনী। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভূখণ্ডটিতে ইসরায়েলি হামলায় নিহত ফিলিস্তিনিদের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। নিহতদের মধ্যে চার হাজারেরও বেশি শিশু।

ইসরায়েলের এই হামলা থেকে বাদ যাচ্ছে না গাজার কোনও অবকাঠামো। তারা মসজিদ, গির্জা, স্কুল, হাসপাতাল, শরণার্থী শিবিরসহ বেসামরিক মানুষের বাড়ি-ঘর সব জায়গায় হামলা চালিয়ে আসছে।

একইসঙ্গে গত ৮ অক্টোবর থেকে গাজায় সর্বাত্মক অবরোধও আরোপ করে রেখেছে ইসরায়েল। এতে করে ফিলিস্তিনি নাগরিকরা খাদ্য, জ্বালানি, খাবার পানি ও ওষুধের সংকটে পড়েছেন।

এই পরিস্থিতিতে অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ড শিশুদের কবরস্থানে পরিণত হচ্ছে বলে সোমবার মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। তিনি বলেছেন, গাজার দুঃস্বপ্ন মানবিক সংকটের চেয়েও বেশি। এটি মানবতার সংকট।

আর তাই বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষার গুরুত্বের ওপর জোর দিয়ে অবিলম্বে মানবিক যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানান গুতেরেস। তিনি বলেন, সশস্ত্র সংঘাতে কোনও পক্ষই আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের ঊর্ধ্বে নয়।

এছাড়া চলমান সংঘাত ‘বিশ্বকে কাঁপিয়ে দিয়েছে’ এবং ‘অনেক নিরপরাধ মানুষের জীবনকে ধ্বংস করেছে’ করেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম