সংবাদ শিরোনাম

 

 

আগামী বছর মার্চে ২০২৬ বিশ^কাপে করকাকাফ অঞ্চলের বাই পর্ব শুরু হবে। বাছাইপর্বে অংশ নিবে মধ্য আমেরিকান ও ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের ৩২টি দল। বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার আগে একটি দল বাছাইপর্বে সর্বোচ্চ ১২টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে।
কনাকাকাফ অঞ্চল থেকে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে বিশ^কাপের যৌথ আয়োজক তিন দল যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও কানাডা। ২০২৬ সালের জুন-জুলাইয়ে এই তিন দেশে বসবে বিশ^কাপের পরবর্তী আসর। গত বছর কাতার বিশ^কাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করা কানাডা বাছাইপর্বে ২০টি ম্যাচ খেলেছিল। এবার ম্যাচ কমিয়ে এবার ১২টিতে আনা হয়েছে।

কনফেডারেশন অব নর্থ ও এন্ড সেন্ট্রাল আমেরিকান এন্ড ক্যারিবিয়ান আসোসিয়েশন ফুটবল জানিয়েছে আগামী বছর মার্চে বাছাইপর্বের প্রথম রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে। ২০২৩ সালের নভেম্বরে ফিফা র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী সর্বনি¤œ স্থানে থাকা চারটি দল এই পর্বে অংশ নিবে। প্রতিটি দল একে অপরের হোম এন্ড এ্যাওয়ে পদ্ধতিতে খেলবে। কনকাকাফের বাকি ২৮টি দল বাছাইপর্বের দ্বিতীয় রাউন্ডে যোগ দিবে। এই রাউন্ড ২০২৪ ও ২০২৫ সালের জুনে অনুষ্ঠিত হবে। পাঁচ দল নিয়ে ছয়টি গ্রুপে সিঙ্গেল রাউন্ড-রবিন পদ্ধতিতে ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি দল দুটি করে হোম ম্যাচে খেলার সুযোগ পাবে।

 

কোস্টা রিকা, পানামা, জ্যামাইকা, এল সালভাদোর ও হন্ডুরাস সম্ভাব্য বাছাইপর্বে সর্বোচ্চ র‌্যাঙ্কধারী দল হিসেবে খেলতে নামবে। প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুটি দল ১২ জাতির ফাইনাল রাউন্ডে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। ফাইনাল রাউন্ডে চারটি করে দল তিন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অংশ নিবে। ডাবল রাউন্ড-রবিন লিগের ম্যাচগুলো ২০২৫ সালে অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি গ্রুপের বিজয়ী দল ৪৮ দেশের বিশ^কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।

 

কনকাকাফ আরো জানিয়েছে এ বছরের নভেম্বরে কনকানাফ নেশন্স লিগ এ’র চারটি কোয়ার্টার ফাইনালে বিজয়ীরা আগামী বছর কোপা আমেরিকায় খেলার যোগ্যতা অর্জণ করবে। দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবলের সর্বোচ্চ এই আসর ইকুয়েডর থেকে সড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হবে। চার কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজিত দলগুলো ২০২৪ সালের মার্চে কোপা আমেরিকার প্লে-ইনে অংশ নিবে। এখান থেকে বিজয়ী দুটি দল ১৬ জাতির টুর্ণামেন্টের অংশ নিবে। কোপা আমেরিকায় ১০টি দল অংশ নিয়ে থাকে।

 

২০২৩-৩৪ নেশন্স লিগ’এর টুর্ণামেন্ট ১২ দল থেকে ১৬টি দলে উন্নীত করা হয়েছে। এ বছর সেপ্টেম্বর-অক্টোবর-নভেম্বরে গ্রুপ পর্বের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। হোম-এন্ড-হোম ফর্মেটের নতুন কোয়ার্টারফাইনাল রাউন্ড নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে। র‌্যাঙ্কিংয়ের সবচেয়ে নীচে থাকা ১২টি ছয় দল করে দুটি গ্রুপে অংশ নিবে। প্রতিটি দল চারটি করে ম্যাচ খেলবে। দুই গ্রুপের শীর্ষ দুই দল কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। কোয়ার্টার ফাইনালে বিজয়ী দল ২০২৪ সালের মার্চে ফাইনাল রাউন্ডে খেলার জন্য মনোনীত হবে।

 

লিগ-বি চার গ্রুপে ও লিগ-সি যথারীতি তিন গ্রুপে অনুষ্ঠিত হবে। লিগ-বি’র শীর্ষ চার দলের পরবর্তী লিগে উন্নীত হবার সুযোগ রয়েছে। তবে ২০২২-২৩ নেশন্স লিগে কোন রেলিগেশন রাখা হয়নি। ২০২৩-২৪ টুর্ণামেন্টের পর লিগ-এ’র পঞ্চম ও ষষ্ঠ দলটি রেলিগেটেড হয়ে যাবে। লিগ-বি’র চারটি দল উন্নীত হবে। একইসাথে এই লিগের শেষ চারটি দল রেলিগেটেড হয়ে যাবে।

 

 


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম